নব্বইয়ের দশকের সেরা দশ কার্টুন সিরিজ

নব্বইয়ের দশকের ছেলেমেয়েদের ব্যস্ততা ছিল কার্টুন নিয়ে, যে কার্টুন না দেখলে তাদের নাওয়া-খাওয়া হত না, ঘুম হত না। সবাই খেলা শেষে ঘরে ফিরে বিকেল বেলায় টিভির সামনে গ্যাট হয়ে কার্টুন শো দেখার অপেক্ষায় থাকতো। ‘কার্টুন নেটওয়ার্ক’ ছিল তখনকার বিখ্যাততম চ্যানেল। স্মার্টফোনের অ্যাপে মেতে থাকার সুযোগ ছিল না, ছিল না দ্রুতগতির ইন্টারনেট, সহজেই ব্রাউজ করার মতো শতশত ইউটিউব চ্যানেল। অগত্যা এক কার্টুন নেটওয়ার্কই ছিল ভরসা। স্যাটেলাইট চ্যানেলের সৌজন্যে ছোটদের সহজ ও সুন্দর বিনোদনের এক চিলতে সুযোগ।

নস্ট্যালজিয়ার মৌতাতে মাততে চলুন না ঘুরে আসা যাক সেই কার্টুন নেটওয়ার্কের দিনগুলি থেকে।

টম অ্যান্ড জেরি

বোকাবাক্সে নব্বই দশকের পুরোটা সময় টম নামের আপাত নির্বোধ বিড়াল আর জেরি নামের অতিচালাক ইঁদুরের খুনসুটি, মারামারি আর নিরন্তর লড়াই উপভোগ করেছে সব বয়সী মানুষ। তাদের কর্মকাণ্ড এখনো ঠিক একই রকম উপভোগ্য, এখনো আগের মতোই জীবন্ত।

এক্সম্যানঃ ইভ্যুলেশন

তখনো মার্ভেলের এক্সম্যানের গল্প নিয়ে সিনেমা তৈরি শুরু হয়নি। উলভারিনের চরিত্রে দেখা দেননি হিউ জ্যাকম্যান। এক্সম্যানেদের দেখা পাওয়ার জন্য কার্টুন সিরিজটিই ছিল শেষ ভরসা।

ক্যাপ্টেন প্ল্যানেট অ্যান্ড দ্য প্ল্যানেটার্স

মনে আছে ক্যাপ্টেন প্ল্যানেটের সেই বিখ্যাত থিম সং? বিশ্বকে বাঁচাতে, পরিবেশ রক্ষা করতে সকল মহাদেশের শিশুদের প্রেরণা ছিল প্ল্যানেটার্সরা। দর্শকদের মধ্যে পৃথিবীকে শত্রুর হাত থেকে রক্ষার সচেতনতা তৈরিতে অনন্য সচেতনতা গড়ে তুলেছিল এই কার্টুন সিরিজটি।

দ্য রিয়েল অ্যাডভেঞ্চার অফ জনি কোয়েস্ট

কার্টুন এই সিরিজের সবচেয়ে আকর্ষনীয় বিষয়টি ছিল স্টোরিলাইনে। জনি, হ্যাডজি আর জেসির সাথে দর্শকও এক পলকে হারিয়ে যেতেন রহস্য আর ভার্চুয়াল জগতের মিশ্রণে গড়ে ওঠা অদ্ভুত এক দুনিয়ায়।

দ্য পাওয়ার পাফ গার্লস

ব্লোসম, বাবলস এবং বাটারকাপ নামের তিন ছোট্ট কন্যা শিশু আর তাদের বিজ্ঞানী বাবার গল্প দিয়ে সাজানো মজার এক কার্টুন সিরিজ। যেখানে বাটারকাপেদের ছিল সুপার পাওয়ার। ছিল বিখ্যাত দুই ভিলেন মজো-জজো ও সেডুসার সাথে তাদের উপভোগ্য সব লড়াইগুলোও।

ডেক্সটার্স ল্যাবরেটরি

নব্বইয়ের দশকের ছানাপোনাদের বিজ্ঞান নিয়ে আগ্রহের শুরু বোধহয় এই কার্টুন সিরিজ থেকেই। এক বুদ্ধিদীপ্ত স্কুল পড়ুয়ার নিজের গোপন ল্যাবরেটরিতে একের পর এক দারুণ সব এক্সপেরিমেন্ট করা দেখে শিশু কিশোরেররা অনুপ্রাণিত না হয়ে যাবে কোথায়? আর ছিল প্রতিবেশী- প্রতিযোগী ম্যানডারাকের সাথে ধুন্ধুমার বৈজ্ঞানিক লড়াই আর নিজের বোন ডিডির সাথে ঘরের ভেতরেই টানটান যুদ্ধের উত্তেজনা।

জনি ব্রাভো

জনি ব্রাভো পুরো সিরিজটাতেই একের পর এক মেয়ে বান্ধবীদের মুগ্ধ করার আপ্রাণ চেষ্টা চালায় এবং অবশ্যই একটিতেও সফল হয়না। মেয়েদের পটিয়ে বাগে আনার টিপস সমৃদ্ধ ছোটদের জন্য তৈরি প্রথম কার্টুন চরিত্র সম্ভবত জনিই।

স্কুবি-ডু, হোয়ার আর ইউ?

চার রোমাঞ্চ প্রিয় কিশোর-কিশোরী, তাদের রহস্যময় এক ভ্যান এবং স্কুবি-ডু নামের এক কথা বলা কুকুর!!! ভৌতিক রহস্যের বাস্তব কারণ খুঁজে বের করার দারুণ সব অভিযানগুলোও তাদের অন্যমাত্রার জনপ্রিয়তা এনে দেয়।

পপাইঃ দ্য সেইলর ম্যান

পপাই আর অলিভের টানাহেঁচড়ার গল্প থেকেও খুদে দর্শকদের কাছে জরুরি ছিল পপাইয়ের সবুজ স্পিনাচ খেয়ে এক লহমায় শক্তি অর্জনের মুহূর্তগুলো। সেকালের অনেক খুদেকেই স্পিনাচ বলে সবুজ শাক-সবজি খাওয়াতে মায়েদের মোক্ষম দাওয়াই ছিল পপাই!

লুনি টুনস্‌

বাগ বানি থেকে শুরু করে রোড রানার, এই লুন্যি টুনস আর মেরি মেলোডিজের প্রতিটি গল্পই ছিল দারুণ মজার। ওয়ার্নার ব্রাদার্সের এই সিরিজটা অনেক শিশুকে নিয়ে গিয়েছিল ওয়াইল্ড ওয়াইল্ড ওয়েস্টে। 

 

 

 

 

 

 

mm
Zannatun Nahar

Zannatun Nahar Nijhum, an aspiring writer and traveler who loves to learn from the nature.