অস্কারের দৌড়ে এবার আছেন কারা?

৯০তম অস্কারের ঘোষণা আসতে বাকি আছে আরো প্রায় ৪ মাস। মার্চের ৪ তারিখ বসবে এবারের অস্কার আসর। তবে এখন থেকেই শুরু হয়ে গেছে অস্কারের দৌড়। মুক্তি পেয়েছে এমন অনেক সিনেমাই সমালোচকদের নজরে এসেছে। টেকো মাথার সোনালী ট্রফিটি এবার কার হাতে যায় তা নিয়ে শুরু হয়ে গেছে নানা জল্পনা-কল্পনা। এই দৌড়ে সামনের দিকে থাকা এমনই কিছু সিনেমার কথা দর্শকদের মনে করিয়ে দিতেই আজকের লেখা।

The Big Sick

‘The Big Sick’ সিনেমার একটি দৃশ্য

রোমান্টিক কমেডি ধাঁচের সিনেমা সাধারণত অস্কারের দৌড়ে খুব বেশি এগুতে পারে না। কিন্তু, The Big Sick কোন সাধারণ কমেডি নয়। জুলাইয়ে মুক্তি পাওয়া এই সিনেমাটি বক্স অফিস হিট তো ছিলোই, সমালোচকরাও সিনেমটি খুব পছন্দ করেছেন। কারণ, সিনেমাটি শুধুই সবার মুখে হাসি যোগায়নি, মনে ভালোলাগাও যুগিয়েছে। নিজের জীবন থেকেই সিনেমাটির গল্প লিখেছেন পাকিস্তানি কুমাইল নানজিয়ানি। অভিনয়ও করেছেন এই সিনেমায়। জোয়ি কাযান আছেন নায়িকা চরিত্রে। শিকাগো শহরে পাকিস্তানি মুসলিম ছেলে কুমাইলের সাথে প্রেম হয় ‘হোয়াইট গার্ল’ এমিলির। দুজনের সাংস্কৃতিক পার্থক্যই নানান হাস্যরসের জন্ম দেয় পুরো সিনেমা জুড়ে।

Call Me By Your Name

‘Call Me By Your Name’ ছবির একটি দৃশ্য

এই সিনেমাটি দেখে আনন্দ পায়নি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কেন্দ্রীয় চরিত্রে আর্মি হ্যামার ও টিমোথি শ্যালামেট এর অসাধারণ অভিনয় তো ছিলোই, পার্শ্বচরিত্রে মাইকেল স্টাহলবার্গ এর অভিনয়ও অনেকদিন দাগ কেটে থাকবে দর্শকদের মনে। সিনেমাটির পরিচালক লুকা গুয়াডাগনিনো ৮০’র দশকের প্রেক্ষাপটে গল্পটি সাজিয়েছেন চমৎকারভাবে। সিনেমাটির গল্প গড়ে উঠেছে এলিও ও অলিভার নামের সমকামী দুই তরুণকে নিয়ে।

Darkest Hour

‘Darkest Hour’ সিনেমায় উইনস্টন চার্চিলের চরিত্রে গ্যারি ওল্ডম্যান

পলিটিকাল ড্রামা ধাঁচের এই সিনেমাটি এবারের অস্কারের দৌড়ে বেশ শক্ত জায়গা করে নিবে বলে ভাবছেন সমালোচকরা। জো রাইটের পরিচালনায় এই সিনেমায় গ্যারি ওল্ডম্যান অভিনয় করেছেন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী উইনস্টন চার্চিলের চরিত্রে। ‘The Theory of Everything’ খ্যাত অ্যান্থনি ম্যাককার্টেন সিনেমাটির গল্প লিখেছেন। ‘বেস্ট পিকচার’ নোমিনেশনে সিনেমাটি অবশ্যই থাকবে বলে ধরে নিয়েছেন সিনেমাবোদ্ধারা। আর গ্যারি ওল্ডম্যান এই সিনেমাটির মধ্য দিয়ে নিজের প্রথম অস্কারটি বাগিয়ে নিতে পারেন বলেও ধারণা করছেন অনেকে।

Dunkirk

ক্রিস্টোফার নোলানের ‘Dunkirk’

ক্রিস্টোফার নোলান একের পর এক বক্স অফিস হিট সিনেমার জন্ম দিলেও এখন অবধি অস্কার সাফল্যের মুখ দেখা হয়নি তার। তিন তিন বার অস্কার নোমিনেশন পেলেও অস্কারটা নিজের করে পাবার স্বপ্নটা এখনো স্বপ্নই রয়ে গেছে তার। সমালোচকদের মতে, Dunkirk সিনেমাটিই নোলানের এই স্বপ্নকে বাস্তবে রূপান্তরিত করবে। সিনেমাটির গল্পও লিখেছেন নোলান নিজেই। ‘বেস্ট পিকচার’ ও ‘বেস্ট ডিরেক্টর’ নোমিনেশন Dunkirk পাবে বলে ধরে নিয়েছে সবাই। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকালীন ‘Dunkirk Evacuation’ এর সত্য কাহিনী অবলম্বনে এই সিনেমার গল্প তৈরি হয়েছে। খুবই কম সংলাপের এই সিনেমাটিতে নোলান যুদ্ধের সাসপেন্স তৈরিতে ব্যবহার করেছেন মূলত মিউজিক ও সিনেম্যাটোগ্রাফি। স্থলপথ, পানিপথ ও আকাশপথ- এই তিন প্রেক্ষাপট থেকে যুদ্ধের গল্প সাজিয়েছেন তিনি।

The Florida Project

‘The Florida Project’ সিনেমার একটি দৃশ্য

শন বেকার-এর পরিচালনায় ড্রামা জনরার ‘The Florida Project’ সিনেমাটিও আছে এবারের অস্কার দৌড়ে। স্পাইডারম্যানের গ্রিন গবলিন খ্যাত উইলেম ড্যাফোকে দেখা যাবে সিনেমাটিতে। খুবই সাধারণ একটি গল্পকে অসাধারণ ভাবে দেখিয়েছেন শন বেকার। ৬ বছর বয়সী ‘মুনি’ নামের একটি মেয়েকে নিয়েই তৈরি হয়েছে সিনেমার গল্প।

Get Out

‘Get out’ সিনেমার দৃশ্যে ড্যানিয়েল কালুয়া

ফেব্রুয়ারিতে মুক্তি পাওয়া কোন সিনেমা সাধারণত অস্কারের আলোচনায় থাকে না। তবে, জর্ডান পিলের পরিচালনায় ‘Get Out’কে ছাড়া এবারের অস্কার আলোচনা অসম্পূর্ণই থেকে যাবে। নিয়মিত অভিনেতা জর্ডান পিলে প্রথমবারের মতো ক্যামেরার পিছনে গিয়েই তাক লাগিয়ে দিয়েছেন পুরো হলিউডে। সিনেমাটির গল্পও লিখেছেন তিনি নিজেই। মিস্ট্রি-থ্রিলার জনরার এই সিনেমার গল্প আবর্তিত হয়েছে ক্রিস নামের এক আফ্রিকান-আমেরিকান তরুণকে নিয়ে।

The Post

‘The Post’ চলচ্চিত্রের একটি দৃশ্যে টম হ্যাংকস ও মেরিল স্ট্রিপ

স্টিভেন স্পিলবার্গের পরিচালনায় ‘The Post’ এবছরের অস্কার দৌড়ের অন্যতম প্রতিদ্বন্দী। টম হ্যাংকস ও মেরিল স্ট্রিপের মতো বড় তারকাও আছেন সিনেমায়। ‘লিগাল ড্রামা’ জনরার এই সিনেমাটির গল্প সত্য কাহিনী অবলম্বনে তৈরি। ‘পেন্টাগন পেপার্স’ ছাপানো নিয়ে যুক্তরাষ্টের দৈনিক ‘The Washington Post’ ও সরকারের মধ্যে বেশ কিছু আইনি জটিলতা তৈরি হয়। সেইসব গল্প নিয়েই স্পিলবার্গ তৈরি করেছেন সিনেমাটি। ‘বেস্ট পিকচার’ এর নোমিনেশনে এই সিনেমার নাম কোনভাবেই মিস হবে না বলে মত দিয়েছেন সিনেমাবোদ্ধারা।

The Shape of Water

‘The Shape of Water’ সিনেমার পোস্টার

Pan’s Labyrinth খ্যাত মেক্সিকান পরিচালক গিলের্মো ডেল টরোর নতুন সিনেমা ‘The Shape of Water’ কেও রাখা হয়েছে এবারের সম্ভাব্য অস্কারজয়ীর তালিকায়। অ্যাডোভেঞ্চার-ফ্যান্টাসি জনরার এই সিনেমাটির গল্প আবর্তিত হয়েছে ১৯৬২ সালের আমেরিকার প্রেক্ষাপটে। কোল্ড ওয়ারের সময় এক গোপন সরকারি ল্যাবরেটরিতে এলাইসা কাজ করে। একদিন সেই ল্যাবে নতুন প্রজাতির একটি জীব আসে। আধা মাছ-আধা মানুষ গোছের এই জীবের প্রেমে পরে যায় এলাইসা। এধরনের গল্প সাধারণত অস্কার জুরিদের পছন্দের বিষয় নয়। ইতিহাস তাই বলে। কিন্তু, ইতিমধ্যে বিভিন্ন ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে এই সিনেমা সমালোচকদের যথেষ্ট প্রশংসা কুড়িয়েছে। তাই, অস্কার সমীকরণের বাইরে থাকছে না এই ছবিটিও।

Three Billboards Outside Ebbing, Missouri

‘Three Billboards Outside Ebbing, Missouri’ সিনেমা যে ৩টি বিলবোর্ডকে নিয়ে

টরেন্টো ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে ‘পিপলস চয়েস অ্যাওয়ার্ড’ জিতে নেয়া মার্টিন ম্যাকডোনার এই সিনেমাটিও আছে এবারের অস্কার দৌড়ে। তাছাড়া, ‘পিপলস চয়েস অ্যাওয়ার্ড’ জেতা সিনেমাগুলোকে যে অস্কার পাবার সম্ভাবনা থেকে কোনভাবেই বাদ দেয়া যাবে না তার প্রমাণ ‘La La Land’ , ‘Slumdog Millionaire’এর মতো সিনেমাগুলো। অ্যাঞ্জেলা নামের এক টিনেজ মেয়ের ধর্ষণ ও খুনকে কেন্দ্র করে সিনেমার গল্প। স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন কোনভাবেই দোষী ব্যক্তিকে খুঁজে পায় না। অ্যাঞ্জেলার মা মিল্ড্রেড হায়েস তা মেনে নিতে পারেন নি। ৩টি বিলবোর্ডে ভাড়া করে তিনি পুলিশ প্রশাসনকে দায়ী করেন তাদের ব্যর্থতার জন্য। এই প্লটেই পুরো গল্প সাজিয়েছেন সিনেমাটির পরিচালক ও লেখক মার্টিন ম্যাকডোনাহ।

Phantom Thread

‘Phantom Thread’ সিনেমার দৃশ্যে Daniel Day-Lewis

এখনো মুক্তিই পায়নি, কিন্তু বছরের মুক্তি পাওয়া অনেক সিনেমা থেকেই অস্কারের দৌড়ে এগিয়ে আছে এই সিনেমাটি। ‘There Will Be Blood’, ‘Magnolia’, ‘Boogie Nights’ খ্যাত পরিচালক পল থমাস অ্যান্ডারসন এখন অবশি ছ’বার ভিন্ন ভিন্ন ক্যাটাগরিতে অস্কার নোমিনেশন পেলেও, অস্কারটা এখনো জেতা হয়নি তার। তবে এই পরিচালকের সাথেই ‘There Will Be Blood’ সিনেমায় অভিনয় করে নিজের ২য় অস্কারটি লুফে নিয়েছিলেন ড্যানিয়েল ডে-লুইস। তাই, এবারো একাধিক ক্যাটাগরিতে এই সিনেমাটির নোমিনেশন অবশ্যই থাকবে বলে ধরে নিয়েছেন সিনেমাবোদ্ধারা। আর ডে-লুইসের ভাষ্যমতে, এটিই হতে যাচ্ছে তার শেষ সিনেমা। ৫০’এর দশকের লন্ডনের প্রেক্ষাপটে তৈরি হয়েছে পুরো সিনেমটি। পরিচালক নিজেই গল্প লিখেছেন। রেনল্ড উডকক নামের এক ফ্যাশন ডিজাইনারের চরিত্রে দেখা যাবে এবার ডে-লুইসকে। উডককের জীবনে প্রেম নিয়ে আসে আলমা নামের একটি মেয়ে। বেশ জটিলতার মধ্য দিয়ে এগিয়ে যায় ড্রামা ধাঁচের এই সিনেমার গল্প।

mm
Amit Pramanik

Amit Pramanik, a learner and a traveler who loves to explore this planet through his writings.