গাড়ির পর ঢাকার রাস্তায় উবারের বাইক

বিশ্বের সবচেয়ে ঘন বসতি পূর্ণ নগর ঢাকায় পরিবহন সংকট নিয়ে নতুন করে কিছু বলার নেই। আপাত সমাধানহীন এই প্রাত্যহিক সংকটে বেশ একটা স্বস্তি এনে দিয়েছে অ্যাপ ভিত্তিক রাইড শেয়ারিং কোম্পানি উবার।

পরিবহন সংকট না হয় কাটলো, কিন্তু যাত্রীদের সেই দীর্ঘ সময় ধরে বসে থাকতে হয় যানজটে। গন্তব্যের পৌঁছানোর অনিশ্চয়তায় অতিরিক্ত ভাড়া কিংবা উবার গাড়ির এসিতেও স্বস্তি মেলে না যাত্রীদের।

দ্রুত সময়ে যাত্রীদের গন্তব্যে পৌঁছানোর বিষয়টি মাথায় রেখে উবার চালু করেছে মটরসাইকেল রাইড শেয়ারিং সেবা উবারমটো। মঙ্গলবার থেকে যাত্রীরা এ সেবা পাবেন। ফেসবুক পেইজে এমনটিই ঘোষণা দিয়েছে সানফ্রান্সিসকো ভিত্তিক রাইড শেয়ারিং সেবা প্রদানকারী কোম্পানিটি। এমনকি জাতীয় দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাও ইতিমধ্যে উবার বাইক ব্যবহার করেছেন। এমন একটি ছবিও তিনি নিজের অফিশিয়ার ফ্যান পেইজে পোস্ট করেছেন।

উবারমটোতে চড়লেন ক্যাপ্টেন মাশরাফি

উবারের অফিশিয়াল সূত্র জানিয়েছে, মটরসাইকেল চালকের কাছে দু’টি হেলমেট থাকবে; একটি নিজের জন্য, অপরটি যাত্রীর জন্য। যাত্রী ও চালক উভয়কে হেলমেট পরতে হবে। উবারমটো সেবা পেতে ’মটো’ অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিতে হবে। সেবার পাওয়া বাদবাকি প্রক্রিয়া অনেকটাই উবারের কার শেয়ারিং সেবার অনুরূপ।

রাজধানীতে ৪ কিলোমিটারের জন্য ভাড়া ৬০ টাকা, ৮ কিলোমিটারের জন্য ৮০ টাকা, এবং ২০ কিলোমিটারের জন্য ৩০০ টাকার মধ্যে থাকবে বলে জানিয়েছে উবার কর্তৃপক্ষ। তবে, ভিত্তি ভাড়া, ওয়েটিং চার্জ, এবং কিলোমিটার প্রতি ভাড়ার বিষয়ে এখনো কিছু জানায়নি উবার। বাইক আরোহীরা নগদ টাকায় কিংবা ডেবিট-ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে ভাড়া পরিশোধ করতে পারবেন।

দেশের প্রথমবারের মতো মটরসাইকেল ভিত্তিক রাইড শেয়ারিং সেবা গত বছরের জুলাই মাসে চালু করেছিল দেশিয় কোম্পানি পাঠাও। এর ধারাবাহিকতায় শেয়ার এ মটরসাইকেল বা স্যাম নামের আরেকটি কোম্পানিও একই ধরনের সেবা চালু করেছে। এমনকি নারী বাইকার দিয়ে শুধু নারী রাইডারদের জন্যও পিংক স্যাম নামে সম্প্রতি রাইড শেয়ারিং সেবা চালু করেছে স্যাম।

উবারের মটরসাইকেল ভিত্তিক এ ধরনের সেবা পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতসহ ভিয়েতনাম ও ইন্দোনেশিয়াতেও চালু রয়েছে।

mm
Mohammed Faisal Haidere

Mohammed Faisal Haidere is an avid reader and likes to follow issues of public interest both national and beyond border.

FOLLOW US ON

ICE Today, a premier English lifestyle magazine, is devoted to being the best in terms of information,communication, and entertainment (ICE).