দ্যা বয় হু লিভড

দশক দীর্ঘ ক্যারিয়ারে খ্যাতি-ফ্যান ফলোয়িং কিছুই কম জোটেনি! সেও মাত্র এক চরিত্রে অভিনয় করেই। চিনতে পেরেছেন নিশ্চয়ই? হ্যারি পটারখ্যাত ড্যানিয়েল র‌্যাডক্লিফের কথাই হচ্ছে।

কালে কালে বেলা গড়িয়েছে অনেক। ছোট্ট সেই হ্যারি এখন ৩০ ছুঁই ছুঁই পূর্ণ যুবক। গতকাল পালন করলেন নিজের ২৮তম জন্মদিন। হলিউডের তারকাদের ইঁদুর দৌড়ে বেশ ভালোই করছেন। রোমান্টিক কমেডি থেকে সিরিয়াস বায়োগ্রাফি সব ধরণের সিনেমাতেই ঔজ্জ্বল্য ছড়াচ্ছেন আমাদের ছোটবেলার গোল চশমা পরা প্রিয় এই তারকা। সেই সিনেমাগুলো থেকেই বেছে নেওয়া হয়েছে তিনটি সিনেমা যাতে নিজের অভিনয়ের আলো ছড়িয়েছেন দ্যা বয় হু লিভড, ড্যানিয়েল র‌্যাডক্লিফ।

কিল ইয়োর ডার্লিংস
২য় বিশ্বযুদ্ধ পরবর্তী সময়ে নতুন এক ঢেউ জাগে মার্কিন সাহিত্যে। একসাথে উঠে আসেন কার-বারোজ-কেরুয়াক-গিন্সবার্গেরা। প্রথাগত সাহিত্যের বদলে সমাজের নানা অসঙ্গতি নিয়ে কথা বলতে শুরু করেন “Beat Genaration”-এর তরুণ সাহিত্যিকরা। প্রথম যুগের বীটনিকদের নিয়ে তৈরি কিল ইয়োর ডার্লিংস সিনেমায় আলোচিত কবি এবং ব্যক্তি জীবনে সমকামী “অ্যালেন গিন্সবার্গ”-এর চরিত্রে অভিনয় করেন র‌্যাডক্লিফ। সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন জন ক্রকিডাস। হাউলখ্যাত কবি অ্যালেন গিন্সবার্গ বাংলাদেশের মুক্তির সংগ্রামের অন্যতম সমর্থক ছিলেন, লিখেছিলেন বিখ্যাত সেই কবিতা- ‘সেপ্টেম্বর অন যশোর রোড’

হর্ন
ছোট শহরের গল্প। খুন হয়েছে এক তরুণী। খুনি এবং ধর্ষক দু’রকমের সন্দেহের তীরই রয়েছে তার প্রেমিকের ওপর। সেই প্রেমিকের আবার গজিয়ে গেল শিং!! এমনই এক চরিত্রে অভিনয় করেছেন র‌্যাডক্লিফ। তার অভিনীত চরিত্রটির মানসিক বিপর্যস্ততার সাথে সাথে আধিভৌতিক কার্যকলাপের মধ্য দিয়ে এগিয়েছে সিনেমার গল্প। ডার্ক ফ্যান্টাসির সাথে এসেছে থ্রিলার। বেশ জমিয়ে অভিনয় করেছেন র‌্যাডক্লিফ। ২০১৪ সালে মুক্তি পাওয়া এই সিনেমার পরিচালক আলেকজান্দ্রা অ্যাজে।

সুইস আর্মি ম্যান
নিঃসঙ্গতার চূড়ান্ত পরিণতিতে নিজেই যখন নিজের জীবনের অবসান ঘটাচ্ছিলেন ঠিক তখনই হ্যাংকের চোখ পরে সাগর থেকে ভেসে আসা এক মৃতদেহের ওপর। সাগরে ভেসে আসা সেই মৃতদেহের চরিত্র অভিনয় করেছিলেন র‌্যাডক্লিফ। হ্যাংক চরিত্রে পল ডানোর সাথে পাল্লা দিয়ে অভিনয় করেছেন র‌্যাডক্লিফ, পুরো সিনেমা জুড়েই। যদিও কাজটা একদমই সহজ ছিল না। সিনেমাতে র‌্যাডক্লিফের উপস্থাপনা ছিল অনেকটা সর্বঘটের কাঁঠালি কলা সুইস আর্মি নাইফের মতো। ২০১৬ সালে মুক্তি পাওয়া এ সিনেমাটি যৌথভাবে পরিচালনা করেছেন ড্যানিয়েল কন এবং ড্যানিয়ের সেইনের্ট।

mm
Zannatun Nahar

Zannatun Nahar Nijhum, an aspiring writer and traveler who loves to learn from the nature.