নেটফ্লিক্সে বাংলাদেশ: টেলিভিশন-পিপড়াবিদ্যার পরে দেখব কোন সিনেমা?

নেটফ্লিক্সে প্রথমবারের মতো উঠতে যাচ্ছে বাংলা চলচ্চিত্র। আগামী ১৫ই মে অনলাইন স্ক্রিনিং প্ল্যাটফর্মটিতে একই সাথে মুক্তি পেতে যাচ্ছে বাংলাদেশের দুটি চলচ্চিত্র।‌‘টেলিভিশন’ এবং ‘পিঁপড়াবিদ্যা’।দুটো চলচ্চিত্রেরই পরিচালক মোস্তফা সরওয়ার ফারুকী। খবরটি এই জন্য গুরুত্বপূর্ণ নয় যে,প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের চলচ্চিত্র নেটফ্লিক্সে জায়গা করে নিল। খবরটির আসল গুরুত্ব হলো, নেটফ্লিক্স বাংলাদেশের চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন কন্টেন্ট অনলাইনে প্রদর্শনের জন্য নির্বাচন করতে শুরু করেছে। এরপরে তাহলে তারা কোন চলচ্চিত্রগুলো প্রদর্শন করবে?

তাদের নির্বাচিত প্রথম দু’টি চলচ্চিত্র থেকে এ ব্যাপারে খানিকটা অনুমান করার চেষ্টা করা যেতে পারে। নির্বাচিত চলচ্চিত্র দুটোর কোনোটিই ঢালিউড অর্থাৎ মেইনস্ট্রিম চলচ্চিত্র নয়। বরং সিনেপ্লেক্সমুখী মধ্যবিত্ত রুচির চলচ্চিত্র। সিনেপ্লেক্সে তো বটেই, যে সিনেমা হলগুলোর পরিবেশ এখনো বেশ ভালো আছে, সিনেমা দুটো সেগুলোতেই দর্শক টানতে পেরেছে। অর্থাৎ ধারণা করা যেতে পারে, নেটফ্লিক্স এরপরে যে চলচ্চিত্রগুলো নির্বাচন করবে, সেগুলোও সম্ভবত একই ধরনের মধ্যবিত্ত রুচির চলচ্চিত্রই হবে।

যদিও বাংলাদেশে মধ্যবিত্তের রুচির সাথে খাপ খাইয়ে চলচ্চিত্র খুব বেশি নির্মিত হয় না বলেই নেটফ্লিক্সের পরবর্তী চলচ্চিত্র কী কী হতে পারে,তার তালিকা করাটাও খুব কঠিন কিছু নয়। সাম্প্রতিক সময়ে মুক্তি পাওয়া চলচ্চিত্রগুলোই সামনে আসতে পারে নেটফ্লিক্সে। যাতে সম্ভাব্য ৪টি নাম হতে পারে- আয়নাবাজি (২০১৬), অজ্ঞাতনামা (২০১৬), মেঘমল্লার (২০১৪), এবং ভুবন মাঝি (২০১৭)।

অমিতাভ রেজার ‌‘আয়নাবাজি’ মুক্তি পায় ২০১৬ সালে। ক্রাইম থ্রিলার জনরার চলচ্চিত্রটিতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেন চঞ্চল চৌধুরী। পার্শ্বচরিত্রে অভিনয় করেন মাসুমা নাবিলা ও পার্থ বড়–য়া। কন্টেন্ট ম্যাটার্স ও হাফ স্টপ ডাউন প্রযোজিত চলচ্চিত্রটি মুক্তির পর বক্স অফিসে রীতিমতো ঝড় তোলে। বহুদিন পর মধ্যবিত্ত বাঙালি কোনো চলচ্চিত্র দেখার জন্য সিনেমা হলে ভিড় করে। এমনকি এই চলচ্চিত্রটির জন্য পরের মাসে মুক্তির অপেক্ষায় থাকা কয়েকটি চলচ্চিত্রের মুক্তির তারিখও পিছিয়ে দেয়া হয়। পরে অস্ট্রেলিয়াসহ কয়েকটি দেশে চলচ্চিত্রটি বাণিজ্যিকভাবে মুক্তি দেয়া হয়। কাজেই এই চলচ্চিত্রটি নেটফ্লিক্সে মুক্তি পেলে একদমই অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

অমিতাভ রেজা চৌধুরী’র ‘আয়নাবাজি’

২০১৬ সালেই মুক্তি পায় তৌকির আহমেদ পরিচালিত ‘অজ্ঞাতনামা’। প্রধান চরিত্রগুলোতে অভিনয় করেন শহীদুজ্জামান সেলিম, মোশাররফ করিম, নিপুণ, ফজলুর রহমান বাবু, আবুল হায়াত, শতাব্দী ওয়াদুদ প্রমুখ। ইমপ্রেস টেলিফিল্ম পরিচালিত চলচ্চিত্রটি একরকম নিভৃতেই মুক্তি পায় এবং কয়েক সপ্তাহ চলার পরে হল ও সিনেপ্লেক্স থেকে নেমে যায়। কিন্তু চলচ্চিত্রটি অনলাইনে ছড়িয়ে পরলে দর্শকদের মধ্যে সাড়া পড়ে।কসোভো ফিল্ম ফেস্ট, রিলিজিয়ান টুডে ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল এবং ওয়াশিংটনের সাউথ এশিয়ান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে পুরস্কারও জিতে নেয়। অর্থাৎ এই চলচ্চিত্রটিও নেটফ্লিক্সে মুক্তি পাওয়ার জোর দাবিদার।

তৌকির আহমেদ এর ‘অজ্ঞাতনামা’

সিনেমা হলে ঝড় তুলতে ব্যর্থ কিন্তু প্রশংসিত আরেক চলচ্চিত্র জাহিদুর রহিম অঞ্জনের ‘মেঘমল্লার’। বেঙ্গল ক্রিয়েশনস প্রযোজিত চলচ্চিত্রটি কথাসাহিত্যিক আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের ‘রেইনকোট’ গল্প অবলম্বনে নির্মিত। প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন শহীদুজ্জামান সেলিম ও অপর্ণা ঘোষ। একাধিক ক্যাটাগরিতে জাতীয় পুরস্কার জিতে নেয়া এবং টরেন্টো ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের কম্পিটিশন ক্যাটাগরিতে নির্বাচিত হওয়া চলচ্চিত্রটি, নেটফ্লিক্সে দর্শকদের হতাশ করবে না।

জাহিদুর রহিম অঞ্জনের ‘মেঘমল্লার’

২০১৭ সালে মুক্তি পেয়েছে ‘ভুবন মাঝি’। সরকারি অনুদানে নির্মিত চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেন ফাখরুল আরেফিন খান। প্রধান চরিত্রে অপর্ণা ঘোষ, কাজী নওশাবা আহমেদ, মামুনুর রশীদ, মাজনুন মিজান প্রমুখের সাথে অভিনয় করেছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ও। নেটফ্লিক্সে মুক্তি দেয়ার জন্য বিবেচিত হতে পারে এই চলচ্চিত্রটিও।

ফখরুল আবেদীন খানের ‘ভূবনমাঝি’
mm
Nabeel Onusurjo

Author, Journalist and Freelance Writer in Dhaka, Bangladesh